iswarchandra vidyasagar

Mohool Potrika
Login Here  Login::Register

গদ্য

গদ্য


স্বপ্নালু চোখে খুঁজি 
নিরঞ্জন জানা

দেখা না করে বাইরে যাওয়া কিংবা বাড়িতে ফিরলে আমার পায়ের শব্দ শুনেই কি করে যে বুঝে যেত--অবাক হয়ে যেতাম! যতক্ষণ না গায়ে-মাথায় হাত বুলিয়ে দিই ততক্ষণ তার বকবকানি শুনতেই হোত। আমার আঙুলের ডগায় বুলিয়ে দিত তার তুলতুলে নরম জিভ। গায়ে শিহরণ-মনে পুলক -আত্মবিস্মৃত হয়ে যেতাম। সে আমার কৈশোর আর যৌবন বেলা ছুঁয়ে আছে। পড়শি গ্রাম থেকে ভেসে আসা আজানের সুরে তার ঘুম ভাঙ্গত। বলত পক্ষীভাষায় অনর্গল কথা। ঘুম ভাঙ্গাত আমার। "চুপ কর, পড়ছি "-বললে তবেই থামত।
স্বাধীনতার এক সকাল। রেডিও তে বাজছে "স্বাধীনতা হীনতায় কে বাঁচিতে চায় হে"। সত্যি তো এভাবে...


এক বিবর্ণ নামতার কোজাগরি
লক্ষ্মীকান্ত মণ্ডল

পাখিরা এমন ডাকাডাকি করল , না জাগলে নিজেকে ভীষণ অপরাধী লাগে , কয়েকদিন কানে বালিশ চাপা দিয়ে পড়ে ছিলাম , কিছুতেই চোখ মেলব না । আরও কিছু সময় দেবে তো , দাও দাও। আরও কিছু অলসতা দাও। যে যা ভাবুক ভাবতে দাও , আমি শুধু কান চেপে শুয়ে থাকি। গাছের পাতা থেকে সরাসরি হাওয়া এসে লাগছে। যতই বলি না কেন - নাহ্ , আর তো শুয়ে থাকা যায় না। রাতে স্বপন দেখা সুব্রত কবিতা নিয়ে দাঁড়িয়েছে। হাঁসটঙ থেকে হাঁসেরা দৌড়ে যাচ্ছে পুকুরের কাছে। আর নারান দাদুর বৌমা কোমরে সায়ার খুঁট গুঁজে গতরাতের বাসি ভাত বাটিতে নিয়ে ঘাট গোড়ায় দাঁড়িয়ে আছে। - আয় হাঁস আয় , জল থেকে খুঁটে বেছে নে ভাত। আমি কী...

WhatsApp Image 2018 10 04 at 23.19.09

 
কথামাত্র 
সুকান্ত সিংহ
 

এক সাধু ছিলেন শ্রীবৃন্দাবনে। অন্ধ। রোজ হেঁটে যেতেন বাঁকেবিহারীর মন্দিরে। একেক দিন কেউ কেউ তাঁকে হাত ধরে এগিয়ে দিত। তিনি সাহায্যকারীকে হাতজোড় করে নমস্কার করতেন। এরকমই একদিন একজন জিজ্ঞেস করেছিল--'আপনি তো দেখতেই পান না, তবু রোজ কেন কষ্ট করে যান ?'...

IMG 20180320 WA0041
বোধিকেন্দ্রে সর্বব্যাপী উপলব্ধির সত্যতাই মণীন্দ্র গু'প্তের কবিতা
তৈমুর খান 
 
  
অনন্তকে ধারণ করে অনন্ত হয়ে যাওয়ার পরও নিজ অস্তিত্বকে আবার আলাদা করে তুলে আনতে পারেন । বস্তু শুধু বস্তু নয়, বাস্তবিক প্রাণের সংরাগে জীবন্ত অনুভবের ধারক ৷ দেখার মধ্যেও একটা আলাদা দেখা থেকে...

IMG 20180320 WA0030
কবিতার কাছে আসা
সোমনাথ শর্মা
 

কবিতা নিয়ে একটা গদ্য লেখার সুযোগ জুটছে। এখন মুস্কিল হচ্ছে কবিতা আর গদ্য এই দুই স্বামী- স্ত্রীকে নিয়ে লিখতে বসা দুরূহ কাজ । কাকে কবিতা বলব না, ভাবতে থাকি । অবন ঠাকুরের এক আধটা লাইনও কি কবিতা নয় ?

...

Page 5 of 5

মহুল ওয়েব প্রকাশিত বিভিন্ন সংখ্যা



করোনা Diary



আমাদের কথা

আমাদের শরীরে লেপটে আছে আদিগন্ত কবিতা কলঙ্ক । অনেকটা প্রেমের মতো । কাঁপতে কাঁপতে একদিন সে প্রেরণা হয়ে যায়। রহস্যময় আমাদের অক্ষর ঐতিহ্য। নির্মাণেই তার মুক্তি। আত্মার স্বাদ...

কিছুই তো নয় ওহে, মাঝে মাঝে লালমাটি...মাঝে মাঝে নিয়নের আলো স্তম্ভিত করে রাখে আখরের আয়োজনগুলি । এদের যেকোনও নামে ডাকা যেতে পারে । আজ না হয় ডাকলে মহুল...মহুল...

ছাপা আর ওয়েবের মাঝে ক্লিক বসে আছে। আঙুলে ছোঁয়াও তুমি কবিতার ঘ্রাণ...

 

 

কবিতা, গল্প, কবিতা বিষয়ক গদ্য পাঠাতে পারেন ইউনিকোডে ওয়ার্ড বা টেক্সট ফর্মাটে মেল করুন [email protected] ।

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ- www.mohool.in এ প্রকাশিত লেখার বিষয়বস্তু ও মন্তব্যের ব্যাপারে সম্পাদক দায়ী নয় ।