Mohool Potrika
Login Here  Login::Register
  • অণুগল্প সংখ্যা । বর্ষা । ২০২০
  • শোনো গো দখিন হাওয়া
  • মহুল ওয়েব ।। অষ্টম সংখ্যা ।। একুশে ফেব্রুয়ারি ২০
  • মহুল ওয়েব ।। উৎসব সংখ্যা ।। মহলয়া ২০১৯
  • মহুল ওয়েব অনুগল্পের আড্ডা (১)
  • মহুল ওয়েব ।। উৎসব সংখ্যা ।। মহলয়া ২০১৮
  • মহুল ওয়েব দ্বিতীয় সংখ্যা
  • মহুল ওয়েব প্রথম সংখ্যা
    আঙুলে ছোঁয়াও তুমি কবিতার ঘ্রাণ...

আমাদের কথা

আমাদের শরীরে লেপটে আছে আদিগন্ত কবিতা কলঙ্ক । অনেকটা প্রেমের মতো । কাঁপতে কাঁপতে একদিন সে প্রেরণা হয়ে যায়। রহস্যময় আমাদের অক্ষর ঐতিহ্য। নির্মাণেই তার মুক্তি। আত্মার স্বাদ...

কিছুই তো নয় ওহে, মাঝে মাঝে লালমাটি...মাঝে মাঝে নিয়নের আলো স্তম্ভিত করে রাখে আখরের আয়োজনগুলি । এদের যেকোনও নামে ডাকা যেতে পারে । আজ না হয় ডাকলে মহুল...মহুল...

ছাপা আর ওয়েবের মাঝে ক্লিক বসে আছে। আঙুলে ছোঁয়াও তুমি কবিতার ঘ্রাণ...

অণুগল্প সংখ্যা । বর্ষা । ২০২০



IMG 20200628 185805  

 

 

বিতানের রবিবার
শীর্ষেন্দু ভট্টাচার্য
 
আজ রবিবার। সকাল থেকেই বিতানের মন ছটফট করছে। আজকে সে খেলতেও যায়নি। আজ যে মায়ের সাথে পুজোর বাজার করতে যাওয়ার কথা। সারা বছর ধরে এই দিনটার অপেক্ষায় থাকে বিতান। কত কী ভেবে রাখে তার শেষ নেই। এবার তো চুপি চুপি অঙ্ক খাতার একটা পাতা ছিঁড়ে রীতিমতো লিস্ট বানিয়ে রেখেছে সে। জামা প্যান্ট নিয়ে কোনও টেনশন নেই। মা তো কিনবেই, মামাবাড়ি থেকে একটা, দুই মাসির বাড়ি থেকে দু'টো-- সব মিলিয়ে চারটে পাঁঁচটা বাঁধা। এবার একটা জুতো কেনার বায়না করেছে। বাবাকে বলে খুব একটা ভালো ফল হয়নি, উল্টে শুনতে হয়েছে, "এই তো দু'দিন আগেই একটা কিনে দেওয়া হলো"। এই হচ্ছে সমস্যা। বর্ষার জুতো আর পুজোর সময় পরার জন্য স্পোর্টস সু'র মধ্যে যে একটা জমিন- আশমান ফারাক আছে, বাবাকে সেটা বোঝাবে এমন সাধ্য তার নেই। এমনিতে বাবা খুবই ভালো। সারাদিন স্কুল আর নানান সামাজিক কাজকর্ম নিয়ে মেতে থাকেন। বিতানদের স্কুলেও কি একটা কমিটিতেও বাবা আছেন। ও বুকলিস্টে বাবার নাম দেখেছে। তবে রেগে গেলে বকেন, কিন্তু পারতপক্ষে মারধোর করেন না। পরীক্ষার রেজাল্ট বেরোনোর পরেও কোনওদিন কত রোল হয়েছে জানতে চাননা, শুধু কিসে কত পেয়েছে জিজ্ঞেস করেন। আর ঘাড় নেড়ে বলেন, " উঁহু, ভূগোল আর অঙ্কে আরও বেশি পেতে হবে"। তাই মায়ের কাছেই বিতানের সব আবদার। বিতানের মাও একটা স্কুলের ম্যাডাম। খুব বড় নাম স্কুলটার। লিখতে গেলে খাতার ওপরের অংশটা ভরে যায়। বিতানের এবছরের লিস্টে অনেকগুলো বই আছে। বই দোকানের কাকু আবার সবগুলো রেখেছে কিনা কে জানে। অনিল ভৌমিকের লেখা ফ্রান্সিসের দুটো গল্প ওর পড়া। বাকি দুটো এবারে নেবে। 'মুক্তোর সমুদ্র' আর 'তুষারে গুপ্তধন'। 'রূপোর নদী' শুকতারায় ধারাবাহিক ভাবে প্রতি সংখ্যায় বেরিয়েছে তাই ওটা না'হলেও চলবে। ফ্রান্সিসের অ্যাডভেঞ্চার ওর হেভি লাগে। ফেলুদা-শঙ্কু মিলিয়ে খান চারেক আর কমিকস অন্তত দশটা নিতেই হবে। আগের বার কেনা কমিকসের মধ্যে তিনটে মিসিং। চাচা চৌধুরীর একটা আর টিনটিনের দুটো বইকে ঝেপে দিয়েছে। এটা নিশ্চিতভাবেই বাপ্পার কাজ। বই পড়তে নিয়ে ফেরত দেবার নামচর্চা করেনা। আর চাইলে বলে, "এমা, সেই যে সেদিন দিয়ে এলুম"। আগের বার মা কিন্তু একটা ক্রিকেট ব্যাটও কিনে দিয়েছিলো, সেটা বাড়তি পাওনা। ওর হিসেবের মধ্যে ছিলোনা। এবারেও কি ওরকম কিছু...যাক সে পরে ভাবা যাবে। মা'কে গিয়ে তাড়া লাগায় একবার। মা রান্না করছে। আজকেও স্কুল যাওয়ার মতো তাড়াতাড়ি ভাত খেয়ে তারপর বেরোবে। আজ মাংস হয়নি। ছ্যাঃ রবিবার দিনেও সেই মাছের কাঁটা বেছে বেছে খেতে হবে! মায়ের হাতেও লিস্ট থাকে। ও দেখেছে। কার কার জন্য কী কী নিতে হবে সব লেখা থাকে। আমাদের জন্য ছাড়াও কাকীমা,খুড়তুতো দিদিদের জন্য, মামাবাড়ির সবার জন্য, মাসিদের জন্য অনেক লম্বা লিস্ট। সেবারে ছোটদের জন্য জামা কেনার সময় ওদের দোকানের যে বাচ্চা ছেলেটা কাজ করে, সে ফ্যালফ্যাল করে দেখছিল। খুব রোগা টাইপের ছেলেটা। মা যে হঠাৎ একটা জামা ওর জন্যেও কিনবে, বিতান ভাবতেই পারেনি। কেনরে বাবা? ওর জামা তো ওর বাবা-মা কিনবে, আর তাছাড়া পড়াশোনা না করে ও ব্যাটা দোকানেই বা কাজ করে কেন সেটাও বিতানের মাথায় ঢোকেনি। ছেলেটা এমন হাঁদা, জামা পেয়ে আবার চোখের জল মুছছিল। অবাক ব্যাপার! ব্যাটা জামা পেয়েছিস, কোথায় আনন্দে লাফাবি, তা না,  এখন আবার কান্নাকাটি জুড়ে দিচ্ছে! জামা কাপড় কিনতে এই দোকানে এলেই বিতানের খুব ভালো লাগে। মা জামা কাপড় কেনার সময় এই কাকুটা সবার জন্য চা আনায়, আর বিতানের জন্য কোল্ডড্রিঙ্কস। মা বারণ করলেও আজকে ও শুনবে না। গলা ধরে গেলে বয়েই গেলো। কত দেরি হবে রে বাবা! কত জায়গায় যেতে হবে এত দেরি করলে হয়! ফিরতে যদি আবার আগের বারের মত দেরি হয়ে যায় তাহলে বিকেলের খেলাটাই মাটি। কালকেও ও ব্যাট পায়নি। ওরা মাটিতে এক-দুই-তিন-চার করে লিখে তার সোজাসুজি লম্বা দাঁড়ি টানে, আর সংখ্যাগুলো ব্যাট দিয়ে চেপে আড়াল করে লটারি করে। যার যেই নম্বর সেই মত ব্যাট পাবে। ওর ভাগ্যটাই খারাপ। পরপর দু'দিন। একদিন ছয়, একদিন সাত। প্রথম দিন বল হারিয়েই গেলো খুঁজেই পাওয়া গেলোনা আর কাল তিন নম্বরে বিল্টার ব্যাট ছিলো। ও ব্যাটা আউটই হলনা। তবে চিটিং করেছে। বিতানের বল ওর ব্যাটে লেগেছিল, রাজু কিপিং এ ক্যাচও ধরেছিল। ব্যাটা মানলোই না! ধুর! মা যে কেন এত দেরি করছে কে জানে। আর বেশি দেরি হলে তো...
এই! উঠে পড়ো! রবিবার সকালটা কি পুরো ঘুমিয়েই কাটাবে? কাল তখনই বলেছিলাম, বেশি রাত অবধি ল্যাপটপে মুখ গুঁজে পড়ে থেকোনা। বাজার করতে যাবে তো? ফ্রিজে কিন্তু একটাও সবজি নেই। আর মানা কে চুল কাটাতে নিয়ে যেতে হবে আজকে সে খেয়াল আছে? লীনার কথায় সম্বিৎ ফেরে বিতানের। এতক্ষণ তাহলে কি...  মাঝে মাঝে মন কেমন করা এরকমই স্বপ্ন কেন যে দুচোখের পাতায় নামে বিতানের কে জানে! ভুলেই যায় আজ দেড় বছর ধরে দুরারোগ্য ব্যাধিতে জর্জরিত তার মা বিছানা ছেড়ে উঠতেই পারেন না। সবই তো জানে সে, তবুও কেন...?                           

আপনার জন্য



Card image




প্রেমের গদ্য   দেখেছেন : 317

সম্পর্ক ।। শুভশ্রী পাল
Suvasree Pal ।। শুভশ্রী পাল

সম্পর্ক-১ উন্মাদনার জীবনের কোনও পাঠক্রম আমাদের শেখানো হয়নি। বোধ হতেই পৌঁছে দেওয়া হয়েছে আবাসিক ব্যবহারিক ক্লাসে৷ যেভাবে জন্মের পর গন্ডারশাবক শিখে নেয় জীবনের দৌড়, সেভাবেই আমরা শিখে নিয়েছি ইন্টিগ্রেটেড জীবন যুদ্ধ। আর এইসবের মধ্যে আমাদের অবলম্বন হয়ে উঠেছে যত্নবোধের শীতলপাটি জড়ানো…

Mar 14, 2020
Card image




অণুগল্প ।। বর্ষা ।। ২০২০  দেখেছেন : 527

আমার বাড়ি কেনা ।। শক্তিপদ মাইতি
Saktipada Maity ।। শক্তিপদ মাইতি

    ঘুপচি ফ্ল্যাটে আর পেরে উঠছি না। চারজনের পরিবার, ছেলেরা বড় হচ্ছে। কলকাতায় যখন থাকতেই হবে একটা বাড়ি কিনলে মন্দ হয় না। কাল বিকেলে পাড়ার চা'এর দোকানে কমলদাকে বললাম। ব্যস। সক্কাল সক্কাল কমলদার ফোন, 'রেডি তো ? তাড়াতাড়ি বেরিয়ে পড়। ' একটু ভয়…

Jun 21, 2020
Card image




উৎসব সংখ্যা :২০১৮ : কবিতা  দেখেছেন : 748

অভিলাষ ।। সুদীপ্ত বিশ্বাস
Sudipta Biswas ।। সুদীপ্ত বিশ্বাস

 অভিলাষ সুদীপ্ত বিশ্বাস তুমি যখন নদী হলেআমার চোখে আলোসাঁতরে ভাঙি উথালপাথাল ঢেউঅনভ্যস্ত গহীন গাঙেআনাড়ি এই মাঝিতুমিই জানো, আর কি জানে কেউ?ঠিক সে সময় ঝাপুরঝুপুর বৃষ্টি যদি নামেআকাশ জুড়ে গলতে থাকে মেঘসুখ সাঁতারে শ্রান্ত আমিঘুমিয়ে যদি পড়িজানবে আমার কেটেছে উদ্বেগ।ঘুম ঘুম ঘুম ঘুমের দেশেস্বপ্নমাখা…

Sep 22, 2018
Card image




উৎসব সংখ্যা : ২০১৯ : গদ্য   দেখেছেন : 645

স্বপ্নালু চোখে খুঁজি ।। নিরঞ্জন জানা
Niranjan Jana ।। নিরঞ্জন জানা

স্বপ্নালু চোখে খুঁজি  নিরঞ্জন জানা দেখা না করে বাইরে যাওয়া কিংবা বাড়িতে ফিরলে আমার পায়ের শব্দ শুনেই কি করে যে বুঝে যেত--অবাক হয়ে যেতাম! যতক্ষণ না গায়ে-মাথায় হাত বুলিয়ে দিই ততক্ষণ তার বকবকানি শুনতেই হোত। আমার আঙুলের ডগায় বুলিয়ে দিত তার তুলতুলে নরম জিভ।…

Sep 17, 2019
Card image




উৎসব সংখ্যা :২০১৮ : কবিতা  দেখেছেন : 282

যুদ্ধের পরে ।। চয়নিকা
Chayanika ।। চয়নিকা

যুদ্ধের পরে চয়নিকা   তারপর যুদ্ধ শেষ হল। তিনভাগ জল আর এক ভাগ রক্ত। ফুসফুসে কার্বন ডাই অক্সাইড, পোড়া মাংসের গন্ধ, কাটা হাত, ঝলসানো পা, ভাঙা মন্দির। চোটে যাওয়া বাড়ির দেওয়াল, ধর্মহীন বাসি মড়া, উপড়ানো তুলসী মঞ্চ, আলাদা হওয়া বেওয়ারিশ মাথা…

Oct 3, 2018
Card image




উৎসব সংখ্যা :২০১৮ : কবিতা  দেখেছেন : 288

যাযাবর ।। দিব্যেন্দু শেখর দাস
Dibyendu Sekhar Das ।। দিব্যেন্দু শেখর দাস

যাযাবরদিব্যেন্দু শেখর দাস     বিষণ্নতার মন ছুঁয়ে যেতে পারে না পরিযায়ী পাখিরা বসে থাকি শেষ বন্দরে চেনা মানুষের মুখোশের ভিড়ে বয়ে যায় জলরাশি আছড়ে পড়ে ঢেউ গভীর সমুদ্রে মুক্ত খুঁজে ঘর সাজানোর চেষ্টা করি আমি অচেনা ঢেউ। সাদা খাতা ভরে যায়…

Oct 4, 2018
Card image




অণুগল্প ।। বর্ষা ।। ২০২০  দেখেছেন : 189

মেঘ ও আরও একটি তিতাসের গল্প ।। শীর্ষা বন্দ্যোপাধ্যায়
Shirsha Bandopadhyay ।। শীর্ষা বন্দ্যোপাধ্যায়

  বাইরে বৃষ্টির সঙ্গে তাল মিলিয়ে, সাউন্ড সিস্টেমে “ভরা বাদর, মাহ ভাদর ” বেজে যাচ্ছে অবিরত । পাশে গল্পগুচ্ছ উঁকি দিচ্ছে, তিতাস শুয়ে শুয়ে ভাবছে ফেলে আসা কথা। আর দু মাস পরে , নতুন ভালোবাসা আসতে চলেছে ওর আর অর্নবের জীবনে।…

Jun 27, 2020
Card image




অনুবাদ কবিতা মহুল ২  দেখেছেন : 907

সহজেই ।। অনুবাদ : টুম্পা পাল
Walter De La Mare ।। ওয়াল্টার ডি লা মেয়ার

সহজেইওয়াল্টার ডি লা মেয়ারঅনুবাদ : টুম্পা পাল অধিকাংশ ক্ষত নিরাময় করে সময়তবু কিছু আঘাত চিরন্তন দাগ রেখে যায়ভগ্ন হৃদয়ের জন্য নেই কোনও ওষুধসহজে কি জোড়া লাগে ভেঙে যাওয়া মন ! তবু পাথরের মতো নিকষ শীতলমস্তিষ্ক বুনে চলে ভাবনার জালমুখচ্ছবি থেকে যায় নির্বিকারযেন…

Jul 29, 2018
Card image




উৎসব সংখ্যা :২০১৮ : কবিতা  দেখেছেন : 281

প্রতিদ্বন্দ্বী ।। কৌশিক দাস
Kaushik Das ।। কৌশিক দাস

  প্রতিদ্বন্দ্বী  কৌশিক দাস আমি সব প্রেমিকের প্রতিদ্বন্দ্বী হবো কারো প্রেমিক হবো না! প্রেমিকের প্রতিদ্বন্দ্বী হতে চাই চোখ ভরে দেখতে চাই রঞ্জন রশ্মিটাকে যার নিবিড় আলিঙ্গনে ধন্য হয় বয়ে যাবে আমার চির নিদ্রার অফুরন্ত প্রহর। এতো যে ভালোবাসা চাও তার এতটুকু উত্তাপ…

Oct 3, 2018
Card image




উৎসব সংখ্যা :২০১৮ : কবিতা  দেখেছেন : 333

মুখোমুখি ।। আকাশ সৎপতি
Akash Satpati ।। আকাশ সৎপতি

মুখোমুখি আকাশ সৎপতি স্মৃতির উল্লম্ফনে মেঘবালিকার আর্তি শিহরণ জাগানো শূন্যস্থান এই চিরস্থায়ী গতিপ্রকৃতির আশ্রয় স্থূলতার কথা বলে জন্মের আদি অন্তে লীন হয়ে আছে বিস্ময় শুধু সন্ধ্যা ফুরিয়ে সব ঝাপসা হলেই আমার মুখোমুখি বসে পূর্বজন্ম চুপিসারে বোঝায় আমৃত্যু ঋণ বাইরের শব্দেরা…

Oct 3, 2018
Card image




উৎসব সংখ্যা : ২০১৯ : গদ্য   দেখেছেন : 887

মনকেমনের জানলা ।। কেশব মেট্যা
Keshab Metya ।। কেশব মেট‍্যা

  বাবা চেয়েছিলেন দোতলার পশ্চিমের ঘরটির উত্তর দিকে কোনও জানলা থাকবে না। থাকবো আমি। ওদিকে ঝোপঝাড় আর সেই পুকুর! তাই বন্ধ থাকবে ওদিক। তার চেয়ে পশ্চিমদিকে দুটো বড় বড় জানলা হয়ে যাক।আমি মানতে পারলাম না। দক্ষিণ এর জানলা রোমান্টিক, শুনেছি পড়েছি।…

Sep 22, 2019
Card image




প্রেমপত্র   দেখেছেন : 354

প্রেমপত্র ।। অর্থিতা মণ্ডল
Arthita Mandal ।। অর্থিতা মণ্ডল

    ঋ,   এখনো দখিনা বাতাস এলে মধ্য তিরিশের খোলা জানালায়  আবারও প্রথম যৌবন আসে। ঋতুরাজ প্রতিদিনের ভাঙনকে অলৌকিক করে দেয়। শীত ঘুম থেকে জেগে ওঠা গাছ তখন আদিম তরুণী । তুমি তাকে গতি দাও। আমার শরীরে বহু জন্মের ঘুঙুর খুলে গেলে…

Mar 10, 2020
Card image




উৎসব সংখ্যা :২০১৮ : কবিতা  দেখেছেন : 325

মৃত জ্যোৎস্নায় সোনালি চাঁদ ।। কৃষ্ণেন্দু দাস
Krishnendu Das ।। কৃষ্ণেন্দু দাস

    মৃত জ্যোৎস্নায় সোনালি চাঁদ  কৃষ্ণেন্দু দাস    মেঘের বাড়ি বৃষ্টি ...বৃষ্টি তুই আয়, আমার বাড়ি আয়...কী দিয়েছিলে ?  বৃষ্টিধোয়া একটা চিঠি...  যাবার আগে সঙ্গে নিও...সন্ধে হলে বুকের কাছে                                            একটুখানি আগুন দিও...একদিন গোধূলিতে...  রেখে যাব                                     মৃত্যুর চিরকুট ...আমার দেয়ালে টাঙানো...তোমার                                    সমস্ত ব্যথার রূপ  ...জানলা খোলা…

Sep 22, 2018
Card image




অনুগল্প  দেখেছেন : 261

লক্ষ্মী-লাভ ।। অপূর্ব পাঁজা
Apurba Panja ।। অপূর্ব পাঁজা

"কনগ্রাচুলেশনস অর্ণব বাবু, মেয়ে হয়েছে আপনার" নার্সের কথাতে চমকে ওঠে অর্ণব। রাত দশটায় পৃথিবীর সব থেকে খুশির মালিক সে। এটাই তো চেয়েছিল অর্ণব আর তার স্ত্রী সুমি। একটা মেয়ে। এইবার সব ঠিক হয়ে যাবে। বিয়ের পর থেকে স্বপ্ন রাখার বাক্সে তিলে…

Mar 14, 2020
Card image




উৎসব সংখ্যা :২০১৮ : কবিতা  দেখেছেন : 535

পুরোনো সারেঙ্গি ।। রেবা সরকার
Reba Sarkar।। রেবা সরকার

পুরোনো সারেঙ্গি রেবা সরকার     তাইতো আমি এক মহানগরী ছোট্ট ঘর দুয়ার ফেলে তিস্তা করলাকে এড়িয়ে গঙ্গার কিনারে বসে-- কবিতা লিখে যাই। লাল সিঁথি কালো ছোপছোপ উদাস বাতাস উন্মুক্ত করে মুখ চিবুক হা-হুতাশ ছড়িয়ে পড়ে সারেঙ্গিটা পুরোনো ধুলোয় স্তূপ স্তূপ নেকড়া দিয়ে…

Oct 3, 2018
Card image




উৎসব সংখ্যা :২০১৮ : কবিতা  দেখেছেন : 276

বনচ্ছায়ে বারোমাস ।। অনুপম দাশশর্মা
Anupam Das Sharma ।। অনুপম দাশশর্মা

বনচ্ছায়ে বারোমাস অনুপম দাশশর্মা     যেন সময়ের ধসে চাপা পড়ে গেছিল মধু-স্বর নীরব থেকে ছিল মোবাইলে চমকে দেওয়া স্নিগ্ধ নাম। একে একে নিভে গেছিল খুশির ঝাড়বাতি জানা ছিল না কোন বিপরীত পথ যেখানে চোখে পড়বে হঠাৎ হারিয়ে ফেলা সেই আকাঙ্খিত রূপময়ী…

Oct 3, 2018
Card image




উৎসব সংখ্যা : ২০১৯ : গদ্য   দেখেছেন : 467

মন কেমন করে ওঠে ।। দুঃখানন্দ মণ্ডল
Dukhananda Mandal ।। দুঃখানন্দ মণ্ডল

মন কেমন করে ওঠেদুঃখানন্দ মণ্ডল মানুষ সম্পূর্ণ ভাবে নিজেকে নিজের কাছে পেয়ে গেলে ঘুরে দাঁড়ায় অতীত থেকে। কিন্তু একটা সময় আসে অতীত খুব নাড়া দেয় স্মৃতি। তখন ক্লাস ফাইভ। বাড়ি থেকে ছয় মাইল দূরে স্কুল। হাঁটা পথ প্রায় তিন ঘন্টার। টিফিন…

Sep 19, 2019
Card image




উৎসব সংখ্যা :২০১৮ : কবিতা  দেখেছেন : 346

অন্য-জীবন ।। পারমিতা ঘোষ
Paramita Ghosh ।। পারমিতা ঘোষ

অন্য-জীবন পারমিতা ঘোষ     শোনো,    এক অজানা গল্প বলি তবে, একাকীত্ব সবার মাঝেও থাকে। মনের সাথে মিলবে দেখা যবে, সঙ্গ পাবে হাজার কাজের ফাঁকে।   ব্যস্ত দু'জন সময়টা নেই কারো। চলতি পথে হঠাৎ দেখা পেয়ে, তুমিও যখন এগিয়ে গেলে আরও আমিও ছিলাম অপেক্ষাতে চেয়ে।   সে এক ছিল অন্যরকম মাস। প্রেম বলতে আদর পাওয়া…

Oct 4, 2018
Card image




উৎসব সংখ্যা :২০১৮ : কবিতা  দেখেছেন : 288

নিম্নক্রম ।। পিয়াংকী মুখার্জী
Piyanki Mukherjee ।। পিয়াংকী মুখার্জী

  নিম্নক্রম পিয়াংকী মুখার্জী   প্রতিটি ধাপে একটু একটু করে খুলে যাচ্ছেবৈধ-অন্তর্বাসক্রমশ প্রচারের আলো দেখছে নগ্নতাপ্রকাশ পাচ্ছে পরবর্তী গন্তব্যের অভিমুখ , লাভা উদগীরণের আগে আগ্নেয়গিরির জ্বলন যেমন বাড়েতেমনই উত্তপ্ত আজ আত্মার জ্বালামুখ ! সর্বনিম্ন ধাপে যেখানে সূচনা হয়েছিলো স্তবপাঠের ,শুদ্ধ সংস্কৃত মন্ত্রচ্চারোণে , শব্দের কম্পাঙ্কেকিশোরী মাটি…

Oct 4, 2018
আরও পড়ুন
«
  • 1
  • 2
  • 3
  • 4
  • 5
»

সর্বাধিক জনপ্রিয়



করোনা Diary



সহজ কবিতা সহজ নয় কঠিনও নয়



আমাদের কথা

আমাদের শরীরে লেপটে আছে আদিগন্ত কবিতা কলঙ্ক । অনেকটা প্রেমের মতো । কাঁপতে কাঁপতে একদিন সে প্রেরণা হয়ে যায়। রহস্যময় আমাদের অক্ষর ঐতিহ্য। নির্মাণেই তার মুক্তি। আত্মার স্বাদ...

কিছুই তো নয় ওহে, মাঝে মাঝে লালমাটি...মাঝে মাঝে নিয়নের আলো স্তম্ভিত করে রাখে আখরের আয়োজনগুলি । এদের যেকোনও নামে ডাকা যেতে পারে । আজ না হয় ডাকলে মহুল...মহুল...

ছাপা আর ওয়েবের মাঝে ক্লিক বসে আছে। আঙুলে ছোঁয়াও তুমি কবিতার ঘ্রাণ...

 

 

কবিতা, গল্প, কবিতা বিষয়ক গদ্য পাঠাতে পারেন ইউনিকোডে ওয়ার্ড বা টেক্সট ফর্মাটে মেল করুন admin@mohool.in ।

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ- www.mohool.in এ প্রকাশিত লেখার বিষয়বস্তু ও মন্তব্যের ব্যাপারে সম্পাদক দায়ী নয় ।