Mohool Potrika
Login Here  Login::Register
  • অণুগল্প সংখ্যা । বর্ষা । ২০২০
  • শোনো গো দখিন হাওয়া
  • মহুল ওয়েব ।। অষ্টম সংখ্যা ।। একুশে ফেব্রুয়ারি ২০
  • মহুল ওয়েব ।। উৎসব সংখ্যা ।। মহলয়া ২০১৯
  • মহুল ওয়েব অনুগল্পের আড্ডা (১)
  • মহুল ওয়েব ।। উৎসব সংখ্যা ।। মহলয়া ২০১৮
  • মহুল ওয়েব দ্বিতীয় সংখ্যা
  • মহুল ওয়েব প্রথম সংখ্যা
    আঙুলে ছোঁয়াও তুমি কবিতার ঘ্রাণ...

আমাদের কথা

আমাদের শরীরে লেপটে আছে আদিগন্ত কবিতা কলঙ্ক । অনেকটা প্রেমের মতো । কাঁপতে কাঁপতে একদিন সে প্রেরণা হয়ে যায়। রহস্যময় আমাদের অক্ষর ঐতিহ্য। নির্মাণেই তার মুক্তি। আত্মার স্বাদ...

কিছুই তো নয় ওহে, মাঝে মাঝে লালমাটি...মাঝে মাঝে নিয়নের আলো স্তম্ভিত করে রাখে আখরের আয়োজনগুলি । এদের যেকোনও নামে ডাকা যেতে পারে । আজ না হয় ডাকলে মহুল...মহুল...

ছাপা আর ওয়েবের মাঝে ক্লিক বসে আছে। আঙুলে ছোঁয়াও তুমি কবিতার ঘ্রাণ...

অণুগল্প সংখ্যা । বর্ষা । ২০২০



IMG 20200628 185805  

 

 


এক বিবর্ণ নামতার কোজাগরি
লক্ষ্মীকান্ত মণ্ডল

পাখিরা এমন ডাকাডাকি করল , না জাগলে নিজেকে ভীষণ অপরাধী লাগে , কয়েকদিন কানে বালিশ চাপা দিয়ে পড়ে ছিলাম , কিছুতেই চোখ মেলব না । আরও কিছু সময় দেবে তো , দাও দাও। আরও কিছু অলসতা দাও। যে যা ভাবুক ভাবতে দাও , আমি শুধু কান চেপে শুয়ে থাকি। গাছের পাতা থেকে সরাসরি হাওয়া এসে লাগছে। যতই বলি না কেন - নাহ্ , আর তো শুয়ে থাকা যায় না। রাতে স্বপন দেখা সুব্রত কবিতা নিয়ে দাঁড়িয়েছে। হাঁসটঙ থেকে হাঁসেরা দৌড়ে যাচ্ছে পুকুরের কাছে। আর নারান দাদুর বৌমা কোমরে সায়ার খুঁট গুঁজে গতরাতের বাসি ভাত বাটিতে নিয়ে ঘাট গোড়ায় দাঁড়িয়ে আছে। - আয় হাঁস আয় , জল থেকে খুঁটে বেছে নে ভাত। আমি কী করে ঘুমিয়ে থাকব ? হে এবড়ো খেবড়ো পথ। বলতে পারি না কাওকেই , ভিটের নিচে রাস্তাটায় সব মোরাম ধুয়ে গেছে , আমার পরিশ্রম বৃথা , বৃথা আমার সরকারি প্রতিনিধিদের উৎকোচ দেওয়া। যতই সততার বড়াই করি না কেন আমাদের রাস্তার জন্য উৎকোচ দিতেই হয় - আর তাদেরও উৎকোচ চাইতেই হয়। নতুবা চাকার গতি নেই - নেই কোন মসৃণতা। বিছানায়ও নেই কোন মসৃণতা। ফনিমনসার কাঁটায় বিঁধে থাকা এক বিন্দু সূর্যালোকের জন্য জানি না কে কার বিছানায় শুয়ে থাকে , কে কার পায়ে পা ঠেকিয়ে ঝগড়া বাঁধায়। সুলোচনার মা শুয়ে থাকে বিছানায় , তিয়াত্তরটি বছরের পর সারা শরীর
ফুলে ঢোল , এবার নাম সংকীর্তন হবে। সুলিস দিয়ে এত জল গড়ানোর এতকাল পরে বিঘে খানিক ঝোপ আর সাপের কুঁড়েঘর ছেড়ে স্বর্গের পথ মসৃণ হবে।

কোনো কোনো ভোর থেকেই দিন সুরু হয়ে যায় অজান্তেই । কোনো হলুদ পাখি জানালায় আসে না। দুঃস্বপ্নের বলাই নেই। কেবল ঝাঁক ঝাঁক পিঁপড়ের মিছিল ঘিরে ধরে আমাকে , মৃত মানুষের মাংস নাকি জমিয়ে রাখতে বেশি পচ্ছন্দ করে ওরা। শীতের জমাটি আহার জন্য। আমি কি মরে যেতে পারি , আমি কি যন্ত্রণায় কাতরাতে পারি কোনদিন ? সবই জানি , সবই জানি এর উত্তর। কিন্তু , জানি -একথাটাই মানতে পারি না। তাই সেদিন পাতার শিশির শুকিয়ে যায়। শুকনো পাতায় কেবল সাদা সাদা মাটির দাগ , অস্তিত্বের প্রতি স্থিতিশীল সমস্ত ঘটনাই উদ্দেশ্যহীন ভাবে ইচ্ছাশূন্য হয়ে যায় । তখনই ধূ ধূ ফাঁকা মাঠ - তখনই দরদরে ঘামের গুমোট। পূব থেকে উত্তরে বেঁকে যাওয়া খালের ধারে খালিগায়ে বাতাস খায় দুলাল , চুমু খায় শালিক পাখির মতো আর কলমির বেগুনিফুল ফুটে যায়। তারপর ছায়া ছায়া পায়ে হাঁটা পথ। কত দূরে সেই প্রনয়লোক ? কোনো বিশেষ রাজা মুখের দেখা পাওয়া যায় না আর। সারাদিন ম্যাদম্যাদে রাস্তা থেকে ফ্যাকাসে ধুলো উড়তে উড়তে ঘিরে ধরে ফাটা ফাটা গাছের বাকল।

এদিকে কত না আড়মোড়া। জেগে উঠছে হারু জেলের কবিতা। তার গায়ে সাঁতারের গন্ধ। আমি কত চেষ্টা করেছি , টুকটাক সাঁতারও কেটেছি। কিন্তু কখনো গায়ে সাঁতারের গন্ধ পাই নি। নিজের গন্ধ নিজে পাওয়া যায় কি। কেউ পাক না পাক আমিতো কখনো পাই না - তা নিয়ে কত না আক্ষেপ ছিল আমার মধ্যে। এভাবেই একদিন বৃষ্টি দেখব বলে এক তিনমাথার বটগাছের তলায় দাঁড়িয়েছি ভর দুপুরে , ঝাঁপবন্ধ দোকানের দোকানদারকে ডেকে বিড়ি কিনেছি - দুটান মেরে ফেলে দিয়েছি - তখনও রাস্তায় শুনশান , কেউ চলাফেরা করেনি , চলেনি কোন অমোঘ সংক্রমণ , জীবন পল্লবিত হবে কিনা জানেনা কেউ। শাখায় শিকড়ের আর পাতায় শত্রু নিয়ে সাবলীল আর সহজ থাকতে থাকতে
কেউ ভেজায়নি গায়ের কাপড়। কেবল নেতাজির স্ট্যাচুর গায়ে লেখা পড়ছি - 'তোমরা আমাকে রক্ত দাও , আমি তোমাদের স্বাধীনতা দেব '। তা দেখেই জনগনতান্ত্রিক নির্বাচন থেকে দুটো দলের কাটাকাটি শুরু হয়েছে। সবাই স্বাধীনতা চাইছে। এবং রক্ত দিচ্ছেও দলে বিদলে। মাটি কালো হয়ে যাচ্ছে শুকিয়ে যাওয়া রক্তে। এদিকে খরা বাড়ছে খু্ব। পিপাসাও বাড়ছে তিনমাথা চারমাথা পাঁচমাথায় - যারা কেবল কথায় কথায় নিন্দা করে - কাঁটা বেঁধায় চোখের তারায় - আমি তাদের রাধি পিসির মতো বলতে পারি - যা , এখান থেকে দুর হয়ে যা। টুকরো টুকরো কিছু হাড় মাস নিয়ে অস্তিত্ব শিখেছি আমি - পরিচ্ছন্ন আলের ভেতর জেগে উঠলেই সমস্ত সাপ কেমন মিইয়ে যায়। লাল মোরগ ডাকে আগুন ঝুটিতে। সারি সারি খড়গাদার পাশ দিয়ে চলে যায় বিন্দু বিন্দু সংগ্রাম আর প্রাণ। কনকনে ঠাণ্ডা নিয়ে হাঁটতে থাকি ভোরের সাথে- পারি না তাও - যুবতী মৌসুমি পিসি এত ভোরে কোথা থেকে ফিরে আসছে ? ঘরের দিকে এখনও তো অন্ধকার ! - কখন বেরিয়ে ছিল কে জানে?

ছোটবেলায় ঠাকুমার বেঁধে দেওয়া তাবিজটা হারিয়ে ফেলেছি কবেই। হারিয়ে ফেলেছি , নাকি আধুনিক হবো বলেই নিজেই খুলে ফেলেছি তামার তাবিজ , মনে করতে পারছি না কোনমতেই। তবে কি আমি কোন অসুখ জড়িয়ে ধরেছি , না কি অজানা পথের দিকে চোখ মেলতেই ভুলে যাচ্ছি জানার নরম ছোঁয়া। বুকের বাঁদিকে হাত রেখে আমি আজও ভীষণ রকম লালায়িত। যদিও শরীরে দাউ দাউ সীমান্ত রক্ষী , আমিও ভয়ঙ্কর ভাবে ঝাঁপিয়ে পড়তে পারি অন্ধকার খাদের মধ্যে , সেখানেই ঝিরঝিরে নদী। তারপরের ব্যবধান টুকুর জন্য আমি রক্ত দেব আমি মাংস দেব। খান খান করে দেব সম্মুখের সব মেশিন গান। সমস্ত সময় এইসব কাঁচের টুকরোভরা রোদ। মৃত্যু যন্ত্রণার সমূহ আশ্বাসে সিক্ত থাকে অক্ষত স্বপ্নেরা। সেসব পরোয়া করা দূর্বিষহ সমস্যার মতো । এর বেশি ভাববার মতো মস্তিষ্ক নেই আমার। পৃথিবীর আহ্নিকগতি কিংবা বার্ষিকগতির একবুক পিপাসা নিয়ে বাতাসে কাছে কথা লুকিয়ে রাখে আলপথ নামের পুরুষ। কিংবা ডাইনে বাঁয়ে সুবিশাল ধানমাঠ রেখে বাসনা জেগে ওঠে ভীষণ চড়াইয়ে । আমার রাত্রি জাগা প্রতিবাদের পরও তাবিজটা থাকলে জড়িয়ে ধরতে পারতাম পিসিকে , জানতে চাইতাম আমায় সঙ্গে নিয়ে যাওনি কেন ?

আপনার জন্য



Card image




প্রেমপত্র   দেখেছেন : 621

প্রেমপত্র ।। কৌশিক চ্যাটার্জি
Koushik Chatterjee ।। কৌশিক চ্যাটার্জি

    সু, অনেকেই হয়ত ভেবেছিল তোমায় পত্র লিখবে, তাই সূর্য ওঠার আগে কানে কলম গুঁজে বেরিয়ে পড়লাম। প্রেম থাকে যদি,  তবে তা প্রতিভাসিত হওয়া উচিত, অসুস্থতার প্রতিফলন ঘটবে সমস্ত মুখ জুড়ে এটাই তো স্বাভাবিক। তুমি যদি ঝিল হও, ডুবে যাওয়া আমার অনিবার্য।আর তুমি যদি…

Mar 10, 2020
Card image




উৎসব সংখ্যা :২০১৮ : কবিতা  দেখেছেন : 509

সুখের কবিতা ।। মানবেন্দ্র পণ্ডিত
Manabendra Pandit ।। মানবেন্দ্র পণ্ডিত

সুখের কবিতা মানবেন্দ্র পণ্ডিত                        মনে পড়ে  শতাব্দী                        ফাগুন বেলার  সেই  বিকেল          অপরিচিত  অনেক   মুখ      দূরে…

Oct 4, 2018
Card image




অণুগল্প ।। বর্ষা ।। ২০২০  দেখেছেন : 216

ফিরে আসা ।। সিদ্ধার্থ দে
Siddhartha Dey ।। সিদ্ধার্থ দে

    মাঝরাতে ঘুম ভেঙে যায় সন্দীপের। আজকাল প্রায়ই এমনটি হয়। চারমিনারের প্যাকেট মাথার কাছ থেকে নিয়ে চলে যায় পূর্ব দিকের বারান্দায়। বাইরে প্রচন্ড ঝড়-ঝঞ্ঝা সঙ্গে বজ্রপাত।    বিদ্যুৎ-এর ঝলকানি মাঝে-মাঝে জানলার কাঁচ ভেদ করে সুলগ্নার শরীরকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলেছে।ইদানীং প্রায়ই সুলগ্না…

Jun 27, 2020
Card image




উৎসব সংখ্যা :২০১৮ : কবিতা  দেখেছেন : 328

ব্যতিক্রমী সময় ৷। নিমাই ক‍রণ
Nimai Karan ।। নিমাই করণ

  ব্যতিক্রমী সময় নিমাই করণ     লুকিয়ে লুকিয়ে যে মানুষটি কাঁদে আমি তাকে বলি সাধনায় আছো‚ আজ নয় কাল তোমার বাগানে পাখি গান গেয়ে যাবে‚ মানুষটি সা-রে-গা-মা সাধতে সাধতে-- রাত দিন কাটিয়ে দেয়; ছেলের জন্য মেয়ের জন্য করেও নিজেকে সাজায়। লোকটি ঠিক লোকের মতোই চা খায়‚ চশমা পরে‚ ঘড়ি দেখে অফিসমুখী হয়‚ তবু তার…

Oct 3, 2018
Card image




উৎসব সংখ্যা :২০১৮ : কবিতা  দেখেছেন : 287

অতএব সিদ্ধান্ততে ।‌। ঋভু চট্টোপাধ্যায়
Ribhu Chattopadhyay।। ঋভু চট্টোপাধ্যায়

  রোদ নামের ছায়া  ঋভু চট্টোপাধ্যায়   সমস্ত প্রেমিকাই ছায়ার মত, শুধু বহুদূর থেকে একটা খণ্ড মহাপুরুষের হাতে এভাবে রাত নামে, গোলাপি বিকাল ঘেমে তেরছা দরজাতে স্রোত নামে, অন্ধ আলোর ঝাঁপ খুলে কীর্তন শোনে একটা কুপি, সেভাবেই চোখে পড়ে। এখনো অনেকে বিশ্বাস করে মিথ বলে কিছু নেই, রাত মানে একটা সকালের…

Oct 4, 2018
Card image




উৎসব সংখ্যা :২০১৮ : কবিতা  দেখেছেন : 284

কন্ডাক্‌টার ।। সোনালী দে
Sonali Dey ।। সোনালী দে

কন্ডাকটার সোনালী দে     গলাটা নামিয়ে বলি, পথটা বড় বেরসিক,     গর্তগার্তা, উঁচু নীচু উফ্, ওরে রাস্তাটা মসৃণ হলেও তো পিছলে যেতে পারে পা টা, না কি ? তাই লাফিয়ে চল, হেঁটে চল, দৌড়ে চল, এমন কি রাস্তা নদী হলে সাঁতরাতেও হতে পারে। ভাবনা জট পাকায়…

Oct 3, 2018
Card image




উৎসব সংখ্যা :২০১৮ : কবিতা  দেখেছেন : 602

অলৌকিক ।। অর্থিতা মণ্ডল
Arthita Mandal ।। অর্থিতা মণ্ডল

অলৌকিক অর্থিতা মণ্ডল      নদীর ভেতর ছায়া, মুখ লুকোন অভিমানের ফাঁকে শীতল অভিবাদন। এসব অশরীরী স্পর্শ, গাছেরা বৃদ্ধ হয়েছেন বহুকাল ঘুঙুরের আওয়াজ কান্নার দাগ ঘিরে ঘিরে অস্পর্শ চ্যুতিরেখা। বাউলিনির গভীর ওমে বাউল সেঁকে নিচ্ছে শুদ্ধ উপাচার। বিষণ্ন কথনে ভাসে সপ্তডিঙা বিষ ফুঁক…

Oct 4, 2018
Card image




কবিতা মহুল ওয়েব প্রথম সংখ্যা  দেখেছেন : 661

ভালবাসা / রুশ ভাষার কবিতা ডেভিড কুগুলতিনভ।।ভাষান্তর : সন্তু জানা
Santu Jana ।। সন্তু জানা

ভালবাসা / রুশ ভাষার কবিতা ডেভিড কুগুলতিনভভাষান্তর : সন্তু জানা  ' লজ্জা-শরম যৌবনে পা                     তখন আমি সবে হারিয়ে ফেলি এক পলকে একটু নিমিষ ক্ষণে আমার একটি প্রিয়তমা ,আহা যার সঙ্গে পিরিত ছিল অবচেতন মনে' , ওই মুণ্ডু দুলিয়ে বন্ধুটি বললে আমায় সত্যটি । আমি বললুম বন্ধুকে :                    'করিস…

Mar 14, 2018
Card image




অনুবাদ কবিতা মহুল ২  দেখেছেন : 1213

মধুশালা ।। অনুবাদ : মৌমিতা সিনহা
Harivansh Rai Bachchan ।। হরিবংশ রায় বচ্চন

মধুশালা  হরিবংশ রায় বচ্চন আনুবাদ : মৌমিতা সিনহা   মধুশালা ১-------------- সুকোমল আঙুর থেকেআজ আমি যে অমৃত তৈরি করেছি,হে প্রিয়,নিজের হাতেই আজ তোমায় পান করাব; প্রথমে তোমাকেই দেব এই অমৃত-ভোগ, তারপর প্রসাদ পাবে জগৎ; সবার আগে তোমাকেই স্বাগতম জানাচ্ছে আমার মধুশালা।   মধুশালা ২-------------- হে তৃষ্ণা আমি ব্রহ্মাণ্ড তপ্ত করে…

Jul 26, 2018
Card image




অণুগল্প ।। বর্ষা ।। ২০২০  দেখেছেন : 126

বৃত্ত ।। কৌস্তুভ
Kaustav ।। কৌস্তভ

    দরজা খুলতেই চমকে উঠলো অমিত, “এটা কি করে সম্ভব ! কাকে দেখছে ও, সুদীপা এখানে ? তবে কি..."সম্পর্কটা টেকেনি ওদের, বিয়ের দেড় বছরের মধ্যেই বিচ্ছেদ। তারপর গত চারটে বছর আর কোনো যোগাযোগ নেই। সুদীপাও যে কম অবাক হয়েছে তা নয়। হোটেলে…

Jun 21, 2020
Card image




উৎসব সংখ্যা :২০১৮ : কবিতা  দেখেছেন : 64

ভালো আছি ।। জয়ন্তী কর্মকার
Jayanti Karmakar।। জয়ন্তী কর্মকার

ভালো আছি জয়ন্তী কর্মকার     এই আছি বেশ ভালো চাই না কোনো মিথ্যে প্রেমের আলো চাই না কোনো জং ধরা জলছবি হাতড়ে খুঁজে মরতে গেলেই হয়ে উঠবো অনামী এক কবি এই আছি বেশ ভালো চাই না কোনো জীবন পৃষ্ঠা যা হবে আবার টলোমলো।…

Oct 3, 2018
Card image




অণুগল্প ।। বর্ষা ।। ২০২০  দেখেছেন : 222

কৃষ্ণগহ্বর ।। সঞ্জীব সেন
Sanjib Sen ।। সঞ্জীব সেন

  স্নিগ্ধা এখন চ্যাটিং এ ব্যস্ত। কৌশিকের সঙ্গে। কৌশিক চল্লিশের হলেও স্নিগ্ধার বয়স কৌশিকের চেয়ে পাঁচ বেশী। স্নিগ্ধার হাসব্যান্ড রৌদ্দুর  সেপারেট থাকে ।  এখন রাত দশটা । দুজন ম্যাচিওর  যখন কথা বলে তখন তালগাছ এর গল্প থাকে না । ওদের চ্যাটিং…

Jun 21, 2020
Card image




অণুগল্প ।। বর্ষা ।। ২০২০  দেখেছেন : 269

লকডাউনে রিয়ার বার্থ ডে পার্টি ।। স্বরূপ ঘড়া
Swarup Ghara ।। স্বরূপ ঘড়া

      অনেকক্ষণ হল রিয়া বিছানায় এসেছে। মরু এখন ও এলো না। খাওয়া গুছিয়ে, সিরিয়াল দেখে অনেক টা টাইম গেল। এখনও ওর কাজ হল না। ওর কি সবসময় ওয়ার্ক ফ্রম হোম, না মারাদোনার  খেলার ভিডিও দেখা? ---কাল আমার বার্থ ডে। মনে আছে তো?…

Jun 27, 2020
Card image




অণুগল্প ।। বর্ষা ।। ২০২০  দেখেছেন : 290

বিড়ালিনী ।। ব্রতী মুখোপাধ্যায়
Brotee Mukhopadhyay ।। ব্রতী মুখোপাধ্যায়

বালকনিতে ঋতম ধোঁয়ার রিং ছুঁড়তে ছুঁড়তে দেউলি পৌঁছে যায়। দেউলি এক গ্রামের নাম যেখানে কোনোদিন তার পা পড়েনি, যেখানে বাঁশবাগানের মাথার ওপর হলুদ রঙের চাঁদ, নদীর ধারে কাশ, মেয়ে বললেই কুসুম, তাদেরই একজনার ও মাই গড বুকের গড়ন, হায়!   …

Jun 27, 2020
Card image




উৎসব সংখ্যা : ২০১৯ : গদ্য   দেখেছেন : 887

মনকেমনের জানলা ।। কেশব মেট্যা
Keshab Metya ।। কেশব মেট‍্যা

  বাবা চেয়েছিলেন দোতলার পশ্চিমের ঘরটির উত্তর দিকে কোনও জানলা থাকবে না। থাকবো আমি। ওদিকে ঝোপঝাড় আর সেই পুকুর! তাই বন্ধ থাকবে ওদিক। তার চেয়ে পশ্চিমদিকে দুটো বড় বড় জানলা হয়ে যাক।আমি মানতে পারলাম না। দক্ষিণ এর জানলা রোমান্টিক, শুনেছি পড়েছি।…

Sep 22, 2019
Card image




উৎসব সংখ্যা :২০১৮ : কবিতা  দেখেছেন : 346

সীমান্তরেখা ।। শ্যামল দত্ত
Shyamal Dutta ।। শ্যামল দত্ত

সীমান্তরেখা শ্যামল দত্ত একটা কবিতা জন্মের ভাবনায় নিঃশব্দ দুপুর; অগোছালো মন ডায়েরীর পাতায়। অক্ষরে অক্ষরে সুগভীর বন্ধন; কলমের ডগায় মৌনমুখর ছন্দে নিবিড় কথামালা। আলোমাখা চাতালে পড়ে থাকা দুরন্ত শৈশব; বাবার সীমাহীন আদরমাখা শাসন-বেলা আর মায়ের আঁচলঘেরা প্রশ্রয়। নোনাস্বাদে বাসযোগ্য ভূমির কঠিন…

Oct 3, 2018
Card image




প্রেমপত্র   দেখেছেন : 406

প্রেমপত্র ।। অমৃতা খেটো
Amrita Kheto ।। অমৃতা খেটো

  এই মুহূর্তে আমি অমৃতা নই, আমি মিলেভা মারিক, আলবার্ট আইনস্টাইন আমার প্রেমিক, তাকে আমি প্রেমপত্র লিখছি...         প্রিয় আলবার্ট,                                   জলতোয়ার নরম বুকে…

Mar 10, 2020
Card image




উৎসব সংখ্যা :২০১৮ : কবিতা  দেখেছেন : 527

অ --- স্পষ্ট ।। অঙ্কন
Ankan ।। অঙ্কন

  অ --- স্পষ্ট অঙ্কন   মাটিতে নামছে মেঘ প্রশ্নেরা হাওয়ারও অধিকবুলেট মিথ্যে করে লিপি আজও সত্যের পথিক নির্বাসনে গৌরী না গৈরিক কালের কন্ঠরোধে যত তুমি তর্জনী ওঠাও কারার অন্ধকারে বিরুদ্ধতার শাস্তি শোনাও মুখরিত ভারভারা রাও বর্বরতা খুন রক্ত ভয়ে , গড়ে নেয় স্তাবকসমাজবুকের গভীর থেকে শব্দশেল …

Oct 5, 2018
Card image




উৎসব সংখ্যা :২০১৮ : কবিতা  দেখেছেন : 255

মা ।। তপন জানা
Tapan Jana ।। তপন জানা

মা তপন জানা যেমনি ছিলেন মাদার মেরি মা যশোদা। তেমনি আছেন মা আমার কাছে সর্বদা। দিনের শেষে কাজের পরে ঘুমাই মায়ের কোলে। মায়ের হাতের স্পর্শে আমার দুখ যে যায় চলে। অন্ধকারে চলতে পথে …

Oct 4, 2018
Card image




উৎসব সংখ্যা : ২০১৯ : গদ্য   দেখেছেন : 739

মনকেমনিয়া ।। অন্তরা দাঁ
Antara Dawn ।। অন্তরা দাঁ

মনকেমনিয়াঅন্তরা দাঁ  বিষাদ রঙের মনখারাপ জড়ো করি দুঠোঁটে, মন ভালো নেই তাই। গুছিয়ে তোলা জীবন যেন ওভারহেডের তারে লেগে থাকা বৃষ্টিফোঁটা, এই ঝরে পড়বে টস করে। এবছর এই মাঝ-শ্রাবণেও মেঘ জমেনি তেমন, এ পাড়ার কড়া নাড়েনি বৃষ্টিফোঁটার বালিকারা। দল বেঁধে তারা সেই যে গেছে…

Sep 17, 2019
আরও পড়ুন
«
  • 1
  • 2
  • 3
  • 4
  • 5
»

সর্বাধিক জনপ্রিয়



করোনা Diary



সহজ কবিতা সহজ নয় কঠিনও নয়



আমাদের কথা

আমাদের শরীরে লেপটে আছে আদিগন্ত কবিতা কলঙ্ক । অনেকটা প্রেমের মতো । কাঁপতে কাঁপতে একদিন সে প্রেরণা হয়ে যায়। রহস্যময় আমাদের অক্ষর ঐতিহ্য। নির্মাণেই তার মুক্তি। আত্মার স্বাদ...

কিছুই তো নয় ওহে, মাঝে মাঝে লালমাটি...মাঝে মাঝে নিয়নের আলো স্তম্ভিত করে রাখে আখরের আয়োজনগুলি । এদের যেকোনও নামে ডাকা যেতে পারে । আজ না হয় ডাকলে মহুল...মহুল...

ছাপা আর ওয়েবের মাঝে ক্লিক বসে আছে। আঙুলে ছোঁয়াও তুমি কবিতার ঘ্রাণ...

 

 

কবিতা, গল্প, কবিতা বিষয়ক গদ্য পাঠাতে পারেন ইউনিকোডে ওয়ার্ড বা টেক্সট ফর্মাটে মেল করুন admin@mohool.in ।

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ- www.mohool.in এ প্রকাশিত লেখার বিষয়বস্তু ও মন্তব্যের ব্যাপারে সম্পাদক দায়ী নয় ।